পেট কেটে গর্ভের সন্তান চুরি করার অপরাধে মৃত্যুদণ্ড মার্কিন মহিলার

সাধারণত কোন মহিলার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়না। আমেরিকায় প্রায় ৭০ বছর পর এ ধরনের ঘটনা ঘটতে দেখা গেল। প্রায় ৭০ বছর পর আমেরিকায় কোন মহিলাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হল। এক গর্ভস্থ মহিলার পেট কেটে সন্তান চুরি করার অপরাধে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করা হল লিসা মন্টগোমরি কে। চলতি বছরের ৮ ডিসেম্বর এই অপরাধের সাজা দেওয়া হবে ঐ মহিলাকে। বিষ ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে এই সাজা দেওয়া হবে।

২০১৪ সালে লিসা প্রথমে সেই গর্ভবতী মহিলাকে শ্বাসরোধ করে খুন করেন। এরপর সেই মহিলার পেট কেটে সন্তান বের করে নেয় লিসা ।তারপর সেই সন্তানকে নিজের সন্তান বলে ছাড়াবার চেষ্টা করে সমাজে। আমেরিকার আদালত ২০০৭ সালে সাজা ঘোষণা করে লিসার বিরুদ্ধে এবং মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করেন।পশ্চিম মিসৌরি জেলা আদালত এই সাজা শোনায় লিসার বিরুদ্ধে। সাজা ঘোষণার পর নিজেকে বাঁচাবার অনেক চেষ্টা করলেও কোন ফল হয় না। আদালতে ক্ষমা ভিক্ষা চাইলেও আদালত লিসাকে ক্ষমা করেনি।

রীতিমতো পরিকল্পনা করে এই খুন করেন লিসা এমনই জানিয়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব জাস্টিস। লিসা থাকতেন কানসাস‌ শহরে। সেখান থেকে মিসৌরির বাসিন্দা স্টিনেটের বাড়িতে গাড়ি চালিয়ে যায় লিসা। সেই সময় স্টিনেট ৮ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। হঠাৎই লিসা ঝাঁপিয়ে পড়ে স্টিনেটের ওপর। আচমকাই মারধর শুরু করে তাকে। এরপর স্টিনেট খাটে পড়ে গেলে তার গলা টিপে ধরে লিসা। এরপর রান্নাঘর থেকে ছুরি নিয়ে আসে সে। তারপর স্টিনেটের পেট চিরে গর্ভস্থ সন্তান বের করে নেয়।

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে খুন এবং শিশু চুরির দায়ে সাজা ঘোষণা করে আদালত। মানসিক বিপর্যস্ত বলে লিসাকে ক্ষমা করে দেওয়ার কথা আইনজীবীরা বললেও, সে কথা শোনেনি মার্কিন আদালত। শুধু শিশু চুরি করেছে তাই নয় সেই চুরি করা শিশুকে নিজের শিশু বলে চালাবার চেষ্টাও করেছে সমাজে। এর আগে শেষবারের মত আমেরিকায় কোন মহিলার মৃত্যু দন্ডের সাজা ঘোষণা করা হয়েছিল ১৯৫৩ সালে। মৃত্যুদণ্ডের সাজা বহুকাল ই বন্ধ ছিল আমেরিকায়।জাতীয় পর্যায়ের ফেডারেল আদালত কিংবা আঞ্চলিক আদালত কেউই মৃত্যুদণ্ডের সাজা শোনাতে পারবে না এমনটাই বলা হয় ১৯৭২ সালে মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের রায়। ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট পদে যোগ দিলে পুনরায় বহাল হয় এই নিয়ম। তবে আমেরিকার অনেক প্রদেশেই এই নিয়ম এখনও চালু হয়নি।

পেট কেটে গর্ভের সন্তান চুরি করার অপরাধে মৃত্যুদণ্ড মার্কিন মহিলার
পেট কেটে গর্ভের সন্তান চুরি করার অপরাধে মৃত্যুদণ্ড মার্কিন মহিলার