বোলপুরে মুখ্যমন্ত্রীর পদযাত্রা এবং জনসভায় অনুব্রতর অনুপস্থিতি নিয়ে ঘনাচ্ছে রহস্য

সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গের এসে রোড শো করে গেলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এই নিয়ে জলঘোলা কম হয়নি। অমিত শাহ এর রোড শো তে লোকও হয়েছিল অনেক। কিন্তু প্রতিদ্বন্দ্বি রাজনৈতিক দল তৃণমূলের কাছে এইটা হয়ে উঠেছিল একটি চ্যালেঞ্জ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) রোড শো তে অমিত শাহের রোড শো এর থেকেও বেশি লোক জমাতে হবে এটাই ছিল উদ্দেশ্য। এবং এক্ষেত্রে কান্ডারী ভূমিকা পালন করেছিলেন তৃণমূলেরই গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal)।

মুখ্যমন্ত্রীর রাজনৈতিক দলের অন্যতম কাছের লোক হিসেবে গণ্য করা হয় অনুব্রত মণ্ডল কে। তাঁর কথার ম্যাজিকেই মানুষ মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে তাঁর সভায় গিয়ে জড়ো হন। বীরভূমের অনুব্রত মণ্ডল এর জনসভা উপচে পড়ে ভিড়ে। কিন্তু এবারের সভা ছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। বোলপুরের এই সভার আয়োজন এর দায়িত্ব ছিল খোদ অনুব্রত মণ্ডল এর উপর। পাশাপাশি বোলপুরে মুখ্যমন্ত্রীর যে রোড শো এর আয়োজন করা হয়েছিল তার দায়িত্বেও ছিল অনুব্রত মণ্ডল।

কিন্তু বোলপুরের এই রোড শো তে হাঁটতে দেখা গেলোনা মুখ্যমন্ত্রীর স্নেহের কেষ্ট কে। এই দিন বোলপুরের লজ মোড় থেকে জামবুনি পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রীর রোড শো অনুষ্ঠিত হয়। সেই রোড শো এর যাবতীয় দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন অনুব্রত। কর্মী-সমর্থকদের জড়ো করা থেকে শুরু করে পদযাত্রার যাবতীয় কাজ অনুব্রত নিজের হাতেই সেরেছেন। কিন্তু সেই রোড‌ শোতেই পা মেলাতে দেখা গেলো না অনুব্রত মণ্ডল কে। শুধু তাই নয় মুখ্যমন্ত্রীর বোলপুরের সভাতেও মঞ্চে উপস্থিত থাকতে দেখা গেলো না অনুব্রত মণ্ডল কে।

রোড শো এবং জনসভা দুই জায়গাতেই অনুব্রত মণ্ডলের অনুপস্থিতি নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। এই নিয়ে কানাঘুষো জল্পনার সৃষ্টি হয়েছে। তৃণমূলের অনুব্রতর অবস্থান নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। যে অনুব্রত নিজে দায়িত্ব নিয়ে রোড শো, সভা সব কিছুর আয়োজন করলেন, সেই সভা থেকেই বঞ্চিত হলেন অনুব্রত! বিভিন্ন রাজনৈতিক মহলে এই নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

এই নিয়ে প্রশ্ন উঠলে অনুব্রতর ঘনিষ্ঠরা জানান, উনি মুখ্যমন্ত্রীর মত অত জোরে হাঁটতে পারবেন না তাই রোড শো তে তিনি অংশগ্রহণ করেননি। কিন্তু ও মুখ্যমন্ত্রীর জনসভায় কেন অনুব্রত কে দেখা যায়নি সেই নিয়ে কেষ্টর ঘনিষ্ঠরা কিছু জানাননি।