Sangbad World

Health Tips: সর্দি-কাশির হাত থেকে বাঁচার ৫টি গুরুত্বপূর্ণ টিপস

5 important tips to avoid colds and coughs, sneezing. সর্দি-কাশির হাত থেকে বাঁচার ৫টি গুরুত্বপূর্ণ টিপস

করোনার সময় সর্দি কাশি (colds and coughs) নিয়ে একটা ভয় সবসময়ই কাজ করছে মানুষের মধ্যে। যেহেতু কোভিড ১৯ ভাইরাস মূলত শ্বাস যন্ত্রকেই আক্রান্ত করে তাই এই সময়ে ঠান্ডা যাতে না লাগে এবং সর্দি-কাশি যাতে না হয় সে দিকে একটু বেশি সর্তকতা অবলম্বন করাই ভালো। পাশাপাশি এই সময় পরিবেশের তাপমাত্রা কমতে থাকছে। রাতের তাপমাত্রা সকালের তাপমাত্রার চেয়ে বেশ কয়েক ডিগ্রি কমে যাচ্ছে। দিন এবং রাতের তাপমাত্রার এই হেরফের সর্দি কাশির জন্য খুব ভয়ানক সময়। তাই এই সিজন চেঞ্জ এর সময় যাতে সর্দি-কাশি না হয় তার জন্য কিছু সাবধানতা অবলম্বন করে চলতে হবে। পাশাপাশি ব্যবহার করে দেখতে পারেন এই ঘরোয়া টোটকা গুলিও। সর্দি-কাশির হাত থেকে বাঁচার ৫টি গুরুত্বপূর্ণ টিপস – 5 important tips to avoid colds and coughs:

5 important tips to avoid colds and coughs

১. সর্দিকাশি হলে এমনিতেই শরীর শুকিয়ে যায় ডিহাইড্রেশন দেখা দেয় শরীরে। পাশাপাশি সময়টা যেহেতু শীতের দিকে আস্তে আস্তে গড়াচ্ছে শরীর তাই আরো বেশি করে শুকনো হয়ে যাচ্ছে। তাই এই সময়ে সর্দি-কাশি হলে শরীরের আর্দ্রতা বজায় রাখতে বেশি করে জল খেতে হবে। জল যদি খাওয়া বেশি না যায় তাহলে সে ক্ষেত্রে সু্প অথবা এমন খাবার খেতে হবে যাতে জলের পরিমাণ প্রচুর।

5 important tips to avoid colds and coughs

২. করোনা কালে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়া খুব দরকার। আর এই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে জিংক। তাই এই সময়ে জিংক সমৃদ্ধ খাবার প্রচুর বেশি পরিমাণে গ্রহণ করা উচিত। ছোলা, বাদাম, মুসুর ডাল এই ধরনের খাবার খেলে ইনটেক অনেক বেশি মাত্রায় হতে পারে।

৩. করোনা হলে বারবার রোগীকে গরম জল কিংবা চা খাবার কথা বলা হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে চা চিনি ব্যবহার না করে মধু দিয়ে চা খাওয়া যেতে পারে কিংবা আদা এবং হলুদ দিয়ে চা বানাতে পারেন। হলুদে রয়েছে এন্টিব্যাক্টেরিয়াল প্রপার্টিস। যা করোনার সময় কোভিড ভাইরাসের প্রতিপত্তি কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া যাদের গ্রিন টি খাওয়ার অভ্যাস রয়েছে তারা গ্রিন টিও খেতে পারেন।

5 important tips to avoid colds and coughs

৪. করোনা রোগীদের অনেক সময় গারগেল করতে বলা হচ্ছে। এমনকি করোনা যাদের ছুঁতে পারেনি তাদেরও অভ্যেস বজায় রাখা উচিত। তাই নুন গরম জলে দিয়ে তা দিয়ে কুলকুচি করলে উপশম হতে পারে গলার।

৫. বলা হয় ঘুম যে কোন রোগকে অনেকটাই কমিয়ে আনতে পারে। তাই এই সর্দি কাশি বা ইনফ্লুয়েঞ্জার সময় পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমের খুবই প্রয়োজন। রাত না জেগে সঠিক সময়ে শোবার অভ্যাস করলে বিশ্রাম পদ্ধতি সঠিকভাবে মানা হয়।

Exit mobile version