Jorabagan Rape Case: উত্তর কলকাতায় ৯ বছরের নাবালিকাকে ধর্ষণ করে খুন, তদন্তে কলকাতা পুলিশ

ধর্ষণের (Rape) শিকার কলকাতা (Kolkata)। উত্তর কলকাতার বুকে ফের ধর্ষণের অভিযোগ উঠল বুধবার। ৯ বছরের এক নাবালিকাকে যৌন নিগ্রহ (Sexual Assault) করে খুনের অভিযোগ উঠেছে উত্তর কলকাতা জোড়াবাগান (Jorabagan North Kolkata) অঞ্চলে। এলাকাজুড়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের তুমুল উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার। তবে ইতিমধ্যে লালবাজার (Lalbazar Police) থেকে স্নিফার ডগ নিয়ে তল্লাশিতে নেমেছেন পুলিশ, সাথে অপরাধীদের খোঁজার জন্য তল্লাশি শুরু করেছে গোয়েন্দা বিভাগও। ঘটনাস্থলে এসেছে ফরেনসিক টিম এবং ঘটনা সরেজমিনে তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন জয়েন্ট সিপি ক্রাইম । পুলিশি তৎপরতায় যা যা পদক্ষেপ নেওয়া দরকার সব রকমই দেওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর। গত বুধবার রাত পৌনে আটটা থেকে নির্যাতিতা মেয়েটি নিখোঁজ। তবে পুলিশ সূত্রে খবর, উদ্ধার কাজের পর তদন্তের জন্য পাঠানো হবে দেহ। A 9-year-old girl dead body found in Jorabagan North Kolkata, family allege rape and murder.

A 9-year-old girl dead body found in Jorbagan North Kolkata, family alleges rape and murder

এলাকা সূত্রে খবর ওই নাবালিকা স্থানীয় বাসিন্দা নয়। মামার বাড়িতে ঘুরতে এসেছিলো কিছুদিন আগে। তারপর বুধবার রাত থেকে নিখোঁজ হয় সেই নাবালিকা। বুধবার রাত পৌনে আটটা থেকে আজ সকাল অবধি অনেকবার থানায় যান নির্যাতিতার বাড়ির লোক। কিন্তু পুলিশ সেই মুহূর্তে সহযোগিতা করেনি বলেই পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ। তবে আজ একটু বেলার দিক থেকে পুলিশ সবরকম পদক্ষেপ নিয়েছে বলেও স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়। A 9-year-old girl was strangled to death in Jorabagan North Kolkata, family allege rape and murder.

পুলিশ সূত্র অনুযায়ী জানা যায় ঐ নাবালিকার বিধ্বস্ত দেহ পাওয়া গেছে এক প্রতিবেশীর বাড়ির ছাদে। বাড়িটির ছাদে ওঠার সিঁড়ি ব্যবস্থা ছিল বাইরে থেকে। ফলস্বরূপ অনুমান করা যাচ্ছে নির্যাতিতা নাবালিকা খেলতে খেলতেই উপরে উঠে যায় এবং তাকে অনুসরণ করে একা পাওয়ার সুযোগে অপরাধীরা সেখানে যান। এরপরই এই পরিস্থিতি তৈরি হয় বাড়িটি জোড়াবাগান সংলগ্ন অঞ্চলে পাপড় গলিতে। অবচেতন অবস্থায় ধর্ষিতার (Raped) দেহ উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি সারা শরীরে আঘাতের চিহ্নও মিলেছে। প্রাথমিকভাবে অনুমান করা যাচ্ছে, যে প্রমাণ লোপাট করার জন্য নয় বছরের মেয়েটিকে যৌননিগ্রহের (Sexual Assault) পর শ্বাসরোধ করে খুন করা করা হয়েছে। নির্যাতিতার গলায় ধারালো অস্ত্রের দাগও রয়েছে। বাঁ দিক থেকে ডান দিকে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এরপরই দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ ওঠে। Jorabagan Rape Case

তবে পুলিশ দোষীদের খুঁজে প্রকাশ্যে আনার এবং উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন এমনটাই জানা গেছে জোড়াবাগান পুলিশের তরফ থেকে।