রাজনীতিতে অঙ্কুশের যোগ দেওয়া নিয়ে টলিউডে গুঞ্জন

সামনে বিধানসভার ভোট। দেশজুড়ে রাজনীতি কারবার এখন তুঙ্গে। এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে টলিপাড়ায় দল নির্বাচন ব্যবস্থা একপ্রকার শুরু হয়ে গেছে। অভিনেতা রুদ্রনীল থেকে শুরু করে যশ দাশগুপ্ত হিরণ চট্টোপাধ্যায় গেরুয়া দলে যোগ দিয়েছেন। কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে অভিনেতা অঙ্কুশও (Ankush Hazra) নাকি বাকি বন্ধুদের মতো গেরুয়া দলে যোগ দিতে আসছে। তবে বাস্তবে একথা কতটা সত্যি তা অঙ্কুশের মুখ থেকে শোনা যাচ্ছে। Actor Ankush Hazra talks about his views on Tollywood stars joining politics.

অভিনেতা অঙ্কুশ (Ankush Hazra) প্রকাশ্যে বলেন যে রাজনীতি সম্পর্কে তার কোনো ধারনাই নেই। ব্যক্তিগত জীবন এবং শুটিং ফ্লোর বাদ দিয়ে রাজনীতির ময়দানে তাকে পাওয়া যায় না। ভোট দেওয়াটা তার কাছে এক কর্তব্য বলে মনে হয় তাই সে ভোট দান করে। তার বাড়িতে বিজেপি দলের উচ্চ স্তরের মানুষেরা যাতায়াত করছে এমন কথা শোনা যায়। এর উত্তরে অঙ্কুশ হেসে বলে যে, আমার বাড়িতে কোনো দলেরই উচ্চ থেকে নিম্ন কোন স্তরের ই লোকজন আসছে না। এগুলো সব বাজে কথা রটানো হচ্ছে। এর পরিপ্রেক্ষিতেই বিপরীত দল থেকে প্রশ্ন আসে প্রচার চালিয়েছেন তাহলে সেটা কে কি বলা হবে!

Actor Ankush Hazra will join BJP Party

প্রশ্নের উত্তরে স্পষ্ট যুক্তিবাদী বক্তব্য রাখেন অভিনেতা অঙ্কুশ (Ankush Hazra)। তিনি বলেন যে আমার কাছে দলের থেকে মানুষ বড়। এবং তিনি আরও বলেন যে শিল্পী হিসেবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছ থেকে যে সম্মান তিনি পেয়েছেন তা তার কাছে অনেক বড় পাওয়া। শিল্পীদের জন্য বাংলার মুখ্যমন্ত্রী যেটা ভেবেছেন তাঁর এই ভাবনাকে সম্মান দেওয়ার জন্য আমি বিভিন্ন মঞ্চে উপস্থিত ছিলাম। এমনকি মিমি চক্রবর্তী আমার খুব ভালো বন্ধু। ওর পাশে একজন প্রচারক হয়ে দাঁড়িয়েছি। অভিনেতা যশ আমার খুব ভালো বন্ধু। বিজেপি দলে যোগ দেওয়ার পর তাঁকে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছি। প্রয়োজন পারলে ও’র প্রচারক হয়ে কাজ করব। নিজে যোগ দিতে পারিনি ঠিকই, তবে বন্ধুদের পাশে দাঁড়াতে কোনো বাধা-নিষেধ নেই। সাথে তিনি এও বলেন যে রাজনীতিতে আমাকে দেখা যাবে না কারণ এই মুহূর্তে রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার মতো চিন্তাভাবনা আমার নেই।

অঙ্কুশ (Ankush Hazra)-এর কথায় জনগণের ভালো করতে হলে তার জন্য বিশেষ ক্ষমতা দরকার পড়ে না। আম্ফান এবং করোনাকালে নিজের ব্যক্তিগত সাধ্যমত যতোটুকু পেরেছি মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। কারোর কোনো অনুমতির জন্য অপেক্ষা করতে হয়নি নিজে নিজে যা ভাল মনে করেছি সেটাই করতে পেরেছি। তবে তার বন্ধুরা যে দলে যোগ দিয়ে মানুষের সেবায় নেমেছেন তাতে তিনি উৎসাহ দিয়েছেন। যশ এবং মিমির কথায় তিনি বলেছেন এরা আমায় ইন্ডাস্ট্রির বন্ধু এদের সাহায্যের জন্য আমি অবশ্যই এগিয়ে যাব। তবে অঙ্কুশ তার আক্ষেপের কথা প্রকাশ্যে বলেছেন টলিউডে যে রং এর ভেদাভেদ দেখা গেছে সেটা তিনি কোনোভাবেই চান না। সকলে এক হয়ে টলিউডের উন্নতির জন্য কাজ করার কথা তিনি বলেছেন।