YouTube-এ ঝড় তুলেছে Baby Shark গানটি, সব রেকর্ড ব্রেক করে এখনো ভিউ পেয়েছে ৭,০৯০ মিলিয়ান

এর আগে বহু ভিডিও ভাইরাল (viral video) হয়েছে। সেই ভিডিওগুলি ছিল বিভিন্ন ধরনের। কোনটি ছিল কোনো সিনেমার রিভিউ,আবার কোনটি বা কোনো সেলিব্রিটি কে ঘিরে চটুল কাহিনী। কোনো নায়িকার গ্র্যান্ড বিয়ের অনুষ্ঠান বা কখনো ছিল কোনো নায়িকার বিচ্ছেদের ঘটনা কে ঘিরে তৈরি হওয়া ভাইরাল হয়ে যাওয়া ভিডিও। এগুলি সব ই কখনো বা কখনো সময় সর্বাধিক দেখা ভিডিও।অর্থাৎ এই ভিডিও গুলি সব চেয়ে বেশি বার দেখা হয়েছে ইউটিউবে। এই সমস্ত ভাইরাল হওয়া ভিডিও গুলি বেশি নজর কাড়ে মানুষের। দর্শক অনেক বেশি আকর্ষিত হয় এই ভিডিও গুলির প্রতি। কখনো বা ভিউজ বাড়ানোর জন্য নামী দামী কোনো ইউটিউবার কে দিয়ে এই সব ভিডিও বানানো হয়ে থাকে। সর্বাধিক ভিউজ পেয়ে ইউটিউবে এক নম্বরে ‘ বেবী সার্ক ‘। Baby Shark song broke all YouTube records| most viewed video on YouTube.

Baby Shark song broke all YouTube records | most viewed video on YouTube
Baby Shark song broke all YouTube records | most viewed video on YouTube.

তবে এবারে ইউটিউবে (YouTube) এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হল যেটি সর্বাধিকবার ইউটিউবে দেখা হয়েছে। অর্থাৎ ইউটিউবে এই ভিডিওটার ভিউজ এখন সর্বাধিক (most viewed video)। ভিডিওটি কোন সেলিব্রেটির জীবনের গল্পকে নিয়ে নয় বরং এটি একটি বাচ্চাদের ভিডিও। এর আগে কখনো বাচ্চাদের ভিডিও কিভাবে ভাইরাল হয়েছে বলে মনে করা হয়নি। ভিডিওটি মূলত বানানো হয়েছিল কোভিভের সময় বাচ্চারা কিভাবে নিজেদের সুরক্ষা নিজেরাই করবে তার ওপর ভিত্তি করে।

করোনা ভাইরাস কে এড়াতে কিভাবে স্বচ্ছতা বিধি মেনে চললে বাচ্চারা সুরক্ষিত থাকবেন তা প্রচার করা ছিল এই ভিডিওটির মূল উদ্দেশ্য। কিন্তু ইউটিউব চ্যানেল কর্তৃপক্ষ ও ভাবতে পারেননি তাদের এই ভিডিও টি এভাবে ভাইরাল হবে এবং সর্বাধিক ভিউজ নিয়ে প্রথম স্থান অধিকার করবে। হোপ সেগুইন নামে এক কোরিয়ান পোপ গায়ক এই ভিডিওর গানটি গেয়েছেন। ভিডিও টি সর্বাধিক জনপ্রিয় হয়েছে বাচ্চাদের মধ্যে। এই ভিডিওটির নাম বেবী সার্ক (Baby Shark)। এতদিন পর্যন্ত ইংলিশ জনপ্রিয় গান ডেস্পাসিত ছিল পয়লা নম্বরে, যে জায়গা টি ছিনিয়ে নিল এই বেবী সার্ক নামের বাচ্চাদের ভিডিওটি।

যদিও বেবি সার্ক নামে এই ভিডিওটি ২ রা নভেম্বর ইউটিউব এ সর্বাধিক ভিউজ পেয়ে প্রথম স্থান অধিকার করে কিন্তু ভিডিওটি ইউটিউবে প্রকাশ করা হয়েছিল ১৭ ই জুন। ৫ মাসের মধ্যেই ভিডিওটি প্রায় ৭.০৪ বিলিয়ান ভিউজ পেয়ে পৌঁছে গেছে এক নম্বরে। ভিডিওটি মূলত কয়েকটি বাচ্চা সার্কের মাধ্যমে অ্যানিমেশন দিয়ে বানানো হয়। যার সাথে কোনো নামজাদা অভিনেতা বা অভিনেত্রী যুক্ত নেই।