“৩ বছর বয়সেই যৌন লালসার শিকার হয়েছি, এরপর থেকেই লড়াই করছি” ফতিমা সানা শেখ

তথাকথিত সুন্দরী তিনি নন। একথা তিনি নিজে জানেন এবং মানেনও। বহুবার তাকে শুনতে হয়েছে খুবই সাধারণ দেখতে তাকে। এই সাধারণ লুক নিয়ে কি করে অভিনয় করবেন এসব বলে বারবার পিছনে টেনে আনার চেষ্টাও কম করা হয়নি। বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে জায়গা পেতে হলে এতদিন শোনা যেত মাথার ওপর গডফাদার থাকতে হয়। তাতে অভিনেত্রীকে যেমনই দেখতে হোক না কেন। (Bollywood actress Fatima Sana Shaikh reveals she was molested as 3 year old.)

সেই সময়ে সৌন্দর্যের মাপকাঠি ইন্ডাস্ট্রিতে পরিচিতির মাধ্যমেই বিচার হতো। এরপরে বলিউডে একটা এমন যুগ এল যখন সৌন্দর্যের মাপকাঠি ছিল গ্ল্যামার, গ্লিটজ। নিখাদ সৌন্দর্যই সুন্দরের সংজ্ঞা ছিল। ঐশ্বর্য রাই, রানী মুখার্জি র মত সুন্দর না হলে সিনেমা পাওয়া ভীষন সমস্যার ব্যাপার হয়ে দাঁড়াতো অভিনেত্রী দের কাছে। তারপরে এমন একটা সময় এলো যখন বলিউড গল্পের মাধ্যমে বলতে থাকলো সাধারণ মানুষের জীবন কথা। তার জন্য বলিউডে প্রয়োজন হলো সাধারণ দেখতে অভিনেতা-অভিনেত্রীদের। এমন অভিনেতা-অভিনেত্রী যাদের লুক সাধারণ জন জীবনের আম আদমি দের সাথে মিলে যায়। বলিউডে কমে এলো ‘ডানা কাটা পরী’-দের চাহিদা। ঠিক সেই সময়ে বলিউডে অনুপ্রবেশ ঘটল রাজকুমার রাও, নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকি উল্টোদিকে মহিলাদের মধ্যে ভূমি পেডনেকার, স্বরা ভাস্করদের। সেই দলে নাম লেখালেন ফাতিমা সানা শেখ (Fatima Sana Shaikh)। আদতে যিনি সুন্দরী হলেও বলিউড তাকে সুন্দরী তকমা দিতে শেখাবে আগ্রহী হয়নি।

যে সময়ে সব অভিনেতাদের বলিউডে অনুপ্রবেশ ঘটল সেই সময়ে সিনেমা গুলির দাম দিতে শুরু করলো কেবলমাত্র খাঁটি অভিনয়ের। দঙ্গল ছবিতে আমির খানের সাথে একইভাবে পর্দা কাঁপালো গীতা ফোগাট ওরফে ফাতিমা সানা শেখ। সাম্প্রতিক একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া ইন্টারভিউয়ে এই অভিনেত্রী জানান বলিউডে কাজ পাওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায় যৌনতা।যৌনতার বিনিময় বলিউডে সহজেই কাজ পাওয়া যায় এমন অভিজ্ঞতা তার এই বলিউডে ঠেকে শেখা। অভিনেত্রী জানান প্রথম যৌন লালসার শিকার হন ৩ বছর বয়সে। সেই সময় কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে তাকে তার পরিচিত বেশকিছু মহিলাকে যেতে হয়। সেই সময় অতিক্রম হয়ে গেলে পরবর্তী ক্ষেত্রে যখন বলিউডে পা রাখেন সানা সেখানেও পড়তে হয় কেরিয়ারের বাধার মুখোমুখি।

অভিনেত্রী জানান বিভিন্ন ছবির ক্ষেত্রে তাকে বারবার মনে করিয়ে দেওয়া হয় তিনি সাধারণ দেখতে। শুধু তাই নয় যৌনতায় রাজি না হলে কাজ যে সহজে মিলবে না তাও মুখের ওপর জানিয়ে দেওয়া হয় অভিনেত্রীকে। অভিনেত্রী আরও বলেন এভাবে একের পর এক কাজ তার হাতছাড়া হতে থাকে সে কাজ পেতে থাকে অন্য কেউ, তবে তা কিভাবে সে বিষয়ে তিনি স্পষ্ট জানাননি। তিনি এও জানান শুধুমাত্র বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ক্ষেত্রে নয় এই সমস্যা যেকোনো কাজের ক্ষেত্রে মহিলাদের এড়িয়ে চলার পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়।