চীন পিছু হাঁটতে নারাজ, গালওয়ান সীমান্তে 40 হাজার সেনা মোতায়েন করে রেখেছে চীন

ভারত ও চীনের মধ্যে সীমান্ত সংঘাত অব্যাহত, সমাধানসূত্র খুঁজতে কূটনৈতিক ও সামরিক স্তরে একাধিক বৈঠক-আলোচনা। সমাধান খুঁজে না পাওয়ার নেপথ্যে রয়েছেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার প্রতি চীনের উৎসাহ না দেখান। সূত্রের খবর, গালওয়ান সীমান্ত থেকে চিনা সেনা এখনো পিছু হাঁটতে রাজি হয়নি। সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, পূর্ব লাদাকের যে সকল অঞ্চল নিয়ে চীন ও  ভারতের সেনার মধ্যে তীব্র সংঘাত চলছে, চিনা আর্মি সেখান থেকে এখনো সরতে রাজি নয়।

কেন্দ্রীয় সরকার সূত্রে খবর, একাধিক দফায় বৈঠক, কূটনৈতিক ও সামরিক স্তরে শীর্ষস্থানীয় আধিকারিকদের হস্তক্ষেপ সত্বেও যোজনা প্রশমন যুক্তি মানতে চাইছে না চীন। এই কারণে ভারত-চীন দুপক্ষই প্রচুর পরিমাণে অস্ত্র ও সেনা মোতায়ন করে রেখেছে এখনও। লাদাখে এখনও প্রায় 40 হাজার সেনাবাহিনী মোতায়েন করে রেখেছে। এছাড়াও নিয়ন্ত্রণরেখার খানিকটা দূরে মোতায়েন করে রেখেছে এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম, দূরপাল্লার আর্টারি, আর্মড্ ভেহিকল সহ প্রচুর অস্ত্র।

কেন্দ্রীয় সূত্র মারফত খবর, প্যাংগং লেকের ধারে ফিঙ্গার ফাইভ এরিয়া থেকে পিছু হটতে চাইছে না চায়না পিপলস লিবারেশন আর্মি। গোগরা পোস্টে বহু কংক্রিটের কাঠামো তৈরি করে রেখেছে চীন। ভারতের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে সীমান্ত উত্তেজনা শিথিল করতে ওই অঞ্চল থেকে পুরোপুরি করতে হবে চীনা সেনাকে।

সীমান্তে উত্তেজনাময় পরিস্থিতি কমানোর উদ্দেশ্যে গত 15-16 তারিখে বৈঠকে বসেছিল দু’দেশের শীর্ষস্থানীয় কর্তারা। শীর্ষ কমান্ডার পর্যায়ে ওই বৈঠকে স্পষ্ট করে ভারত-চীন কে জানিয়ে দেয় পুরোপুরি সমাধান চাইলে সীমান্তে সেনা সংখ্যা কমাতে হবে।

Arindam

I am a professional Blogger.