Sangbad World

‘কৈলাস ঘনিষ্ঠ রাকেশ সিং-ই ফাঁসিয়েছে’, CID তদন্তের দাবি Pamela Goswami-র

Pamela Goswami With BJP MP Locket Chatterjee

গেরুয়া দলের যুব নেত্রী পামেলা গোস্বামী (Pamela Goswami), তিনি নিজে একজন বিজেপি দলের নেত্রী। তবে তাকে ঘিরেই দলের ভেতরে বেশ শোরগোল এবং এক উন্মাদনা সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল পামেলা কে কোকেনসহ পাওয়া যায় কলকাতার নিউ আলিপুরে। সেখানে তিনি তাঁর ঘনিষ্ঠ বন্ধু প্রবীরের সাথে ছিলেন। নিউ আলিপুরের এন আর এভিনিউ থেকে তাদের গ্রেফতার করেন পুলিশ। তবে পুলিশ জানিয়েছেন ১০০ গ্রাম কোকেনসহ তাদেরকে গ্রেপ্তার করেছেন। যা বর্তমান পরিস্থিতিতে আনুমানিক কয়েক লক্ষ টাকার দাবি জানিয়েছে পুলিশ আধিকারিক। কিন্তু পামেলা অভিযোগের আঙুল তুলছে বিজেপি নেতা বিজয় বর্গীয় ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি রাকেশ সিংয়ের দিকে। যদিও অভিযোগের তীর রাকেশের দিকে উঠলে তিনি যে তিনি এসব কিছু জানেন না, এসবের সাতে পাঁচে নিজেকে রাখেননি। Pamela Goswami demands CID probe ‘Kailash close Rakesh Singh hanged’.

Actress Pamela Goswami BJP With BJP top leader Mukul Roy

এদিকে শনিবার পামেলার বন্ধু এবং গাড়ির চালকসহ আদালতে নিয়ে আসা হয়। গাড়ি থেকে নামতেই সংবাদমাধ্যমে ক্যামেরা পামেলার চোখে পড়তেই সে জোর গলায় চিৎকার করে বলেন যে, এই পুরো বিষয়টা একটা চক্রান্তের ফল। এর জন্য রাকেশ সিং-কে গ্রেফতার করা উচিত। সিআইডি তদন্ত থেকে সিবিআই তদন্ত যা যা গোয়েন্দা বিভাগ আছে তার প্রত্যেকটা বিভাগকে কাজে লাগানো উচিত। আসল দোষীকে সামনে এনে তাকে গ্রেফতার করা উচিত পুলিশের। পামেলা (Pamela Goswami) গ্রেফতার হওয়ার জন্য রাকেশ সিং কেও কাঠগোড়ায় তোলে। একবার নয় বারবার সে রাকেশের কথা তুলেছেন। এমনকি এজলাসে তোলার সময়ও সে চিৎকার করে বলেছেন যে ছেলেটিকে নিজের ব্যক্তিগত কাজের জন্য পাঠানো হয়েছে। এই বিষয়ের পেছনে চক্রান্তের হাত রয়েছে একমাত্র রাকেশের।

২০১৯ সালে লোকসভা ভোটের আগে কংগ্রেস থেকে বিজেপিতে যোগদান করেন এই রাকেশ। বস্তি শাখা উন্নয়নের উচ্চপদের জন্য তাকে নির্বাচন করা হয়। এছাড়াও বন্দর এলাকার নেতা হিসেবে রাকেশের পরিচয়। ২০২০ এর জানুয়ারি মাসে বন্দর এলাকায় শোভন এবং বৈশাখী মিছিলের আয়োজন এর দায়িত্বভার রাকেশের ওপরে ছিল। তবে এখন জলঘোলার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে পামেলা এবং রাকেশের দ্বন্দ্বের উৎস ঠিক কবে থেকে এবং কেন! অন্যদিকে পামেলার গ্রেফতারের পেছনে চক্রান্তের গন্ধ পাচ্ছে বলে দাবি পুলিশের।

পামেলার বাবা কৌশিক গোস্বামী (Kaushik Goswami) পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন যে, প্রবীর এবং পামেলা (Pamela Goswami) ইন্টেরিয়র ডেকোরেশন এর ব্যবসা শুরু করেন একসাথে। তবে একথা ঠিক যে বন্ধুত্বের সাথে সাথে তাদের মধ্যে একটা ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক সৃষ্টি হয়েছিল। এবং আরো বলেন যে প্রবীর তাকে মাদক নেশা আসক্ত করেন। তবে এই অভিযোগ আজকের নয়। প্রায় ১০ মাস আগেই তার বাবা যাদবপুর থানা এই অভিযোগ দায়ের করেন। লালবাজার পুলিশের কাছে এই বিষয় নিয়ে আবারও তদন্তের কথা তোলেন কৌশিক। পুলিশ সূত্রে খবর পামেলা কে ট্র্যাক করতে শুরু করে দিয়েছেন পুলিশ আধিকারিকরা। তবে এর পেছনে আসলে কার হাত রয়েছে সে বিষয়ে এখনই বিশেষ কিছু বলা যাচ্ছে না।

Bengali actress and BJP youth leader Pamela Goswami. In early life, she performs a dance in many competitions and wins many of the challenges. She enters into modeling after Higher Secondary Education. She also acting in some Bengali movies. In 2019, Pamela Goswami joins the BJP party as a normal worker and after some time she becomes Youth Wing General Secretary (Bharatiya Janata Yuva Morcha).

Exit mobile version