ভগবান শিবকে নিয়ে আপত্তিজনক পোস্ট সায়ানি ঘোষের! গালাগালি খাওয়ার পর ডিলিট করলেন

হিন্দু সংস্কৃতিতে আঘাত হানা লিবারেল জামাতদের যেন নিয়মিত চর্চা হয়ে উঠেছে। হিন্দু সংস্কৃতির বিরোধিতা করাই যেন এখন তাদের মূল লক্ষ্য। নিজেদের অনুভূতিকে লুকিয়ে রেখে হিন্দু সংস্কৃতিকে টার্গেটে রেখে সেই নিয়ে কটাক্ষ করা এখন যেন কট্টরপন্থীদের রোজনামচা হয়ে গিয়েছে। হিন্দু ধর্মের ভাবাবেগে আঘাত করার জন্য অনেক সময়েই লিবারেল জামাতের‌ প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে। তবু হিন্দু অনুভূতিতে আঘাত করা এক চুলও কমেনি। সম্প্রতি এই ঘটনাকে নিয়ে পুনরায় ভাইরাল হয়েছে অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের (Saayoni Ghosh) পুরনো একটি পোস্ট। Saayoni Ghosh’s offensive post about Lord Shiva.

সায়নী ঘোষের করা হিন্দু দেবদেবী নিয়ে মজার ছলে করা একটি ভিডিও নিয়ে পুনরায় জলঘোলা শুরু হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। সম্প্রতি হিন্দু দেব-দেবীকে জড়িয়ে তার পাশাপাশি রাজনীতি নিয়ে মন্তব্য করে সায়নী ঘোষ বলেছিলেন বাইকে চেপে জয় শ্রীরাম ধ্বনি দেওয়া হিন্দু সংস্কৃতি নয়। তারপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়ে সায়নী ঘোষের পোস্ট করা পুরনো একটি টুইট। শিবরাত্রিতে তিনি মহাদেব (Shiv)কে নিয়ে একটি পোস্ট করেন যেখানে দেখা যায় বুলাদি শিবলিঙ্গে গর্ভনিরোধক ক্যাপ পরাচ্ছেন। পোস্টটির ক্যাপশনে সায়নী লিখেছিলেন, “God cudnt have been more useful.”

২০১৭ সালে ১৭ই জানুয়ারি শিবরাত্রির পরের দিন ১৮ই জানুয়ারি সোশ্যাল মিডিয়ায় এই পোস্টটি করেছিলেন সায়নী। যেখানে হিন্দু দেবদেবীর বিরুদ্ধে বিরূপ মন্তব্যের জেরে যদিও সেভাবে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন নি অভিনেত্রী। অবশ্য কিছুদিন আগে জয় শ্রীরাম ধ্বনি নিয়ে রাজনৈতিক মন্তব্য করলে সায়নীর পুরনো এই টুইটার পোস্টটি কে নিয়ে শুরু হয় ফের জলঘোলা।

দেখা যায় সায়নী ঘোষ পুরনো এই পোস্টটিতে শিবরাত্রিতে হিন্দু ভগবান মহাদেব কে নিয়ে কুরূপ মন্তব্য করলেও ক্রিসমাসে অথবা ঈদে করা পোস্টে যীশু কিংবা ইসলাম ধর্মের ভাবাবেগে কোনরকম আঘাত করেন নি তিনি। উল্টে সেখানে ভালো ভালো কথাই লিখতে দেখা গিয়েছে অভিনেত্রীকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় রুদ্রজিত নামে এক ইউজার সায়নী ঘোষ কে এক হাত নিয়ে বলেছেন, “হ্যাঁ মা দুর্গা কৈলাসের, হনুমান কর্নাটকের, শ্রীকৃষ্ণ উত্তর ভারতের। একমাত্র পার্কস্ট্রিটে জন্ম নেওয়া যীশু আর লেনিন সরণি তে জন্ম নেওয়া লেনিন বাংলার ভূমিপুত্র।”

সায়নীর করা পুরনো এই পোস্টটিকে নিয়ে নানান জনের নানান রকম মন্তব্য করলে অবশেষে পুরনো এই পোস্টটি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট থেকে ডিলিট করে দেন অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ।