‘জয় জওয়ান, জয় কিষাণ’ স্লোগান দিয়ে কৃষকদের আন্দোলনে অংশ নিলেন দ্য গ্রেট খলি

সংশোধিত কৃষি আইন নিয়ে কৃষকদের বিক্ষোভ এর পাশে এবার এসে দাঁড়ালেন প্রাক্তন ওয়ার্ল্ড রেসলিং এন্টারটেইনমেন্ট অনুষ্ঠানের কুস্তিগীর দ্য গ্রেট খলি (The Great Khali)। খালী নিজের পাঞ্জাবের অধিবাসী। তাই পাঞ্জাবের কৃষকদের এই দুর্দিনে তাদের পাশে এসে দাঁড়ালেন বিশ্ব বিখ্যাত এই কুস্তিগীর। মঙ্গলবার টিকরি বর্ডারে কৃষকরা যে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছিলেন সেই বিক্ষোভে কৃষকদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয় কৃষকদের এই দাবিকে সমর্থন করার কথাও জানিয়েছেন দেশবাসীর উদ্দেশ্যে (The Great Khali protest Farmer Bill)।

The Great Khali took part in the farmers' movement with the slogan 'Joy Jawan, Joy Kisan'.
The Great Khali took part in the farmers’ movement with the slogan ‘Joy Jawan, Joy Kisan’.

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল সরকারের নির্দিষ্ট করে দেওয়া জায়গায় যদি কৃষকেরা তাদের আন্দোলনকে সরিয়ে নিয়ে যান তাহলে কেন্দ্রীয় সরকার এই শর্ত সাপেক্ষে কৃষকদের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন। কিন্তু এই প্রস্তাবে বিক্ষোভকারী কৃষকরা রাজি হননি। এরপরে মঙ্গলবার সরকারপক্ষ এবং আন্দোলনকারীদের মুখোমুখি একটি বৈঠক হয়। সেই বৈঠকে সরকারের তরফ থেকে জানানো হয় নতুন কৃষি আইন নিয়ে কৃষকদের যে সমস্যাগুলি হচ্ছে সেই সমস্যাগুলি একটি সমীক্ষার মাধ্যমে খতিয়ে দেখা হবে এবং তার জন্য সরকার একটি সমিতি গঠন করবেন। কিন্তু এই প্রস্তাবে রাজি হন না কৃষক সম্প্রদায়ের আন্দোলনকারীরা। শেষমেষ এই বৈঠকে কোন আশানুরূপ ফল হাতে আসেনি কৃষক আন্দোলনকারীদের। যদিও এর পরে পুনরায় বৈঠকে বসার কথা দেন কেন্দ্রীয় সরকার। কৃষক আন্দোলনকারীদের তরফ থেকে এই প্রস্তাবকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

সংশোধিত কৃষি বিল নিয়ে কৃষকদের আন্দোলনের মূল লক্ষ্যই ছিল এই বিল বাতিল করা। কিন্তু এই বিল বাতিল করা সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে। তবে এই বিল নিয়ে কি কি আপত্তি রয়েছে কৃষকদের তা বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় বার বৈঠকের আগের দিন অর্থাৎ বুধবার উত্থাপিত করতে বলা হয়েছে কৃষকদের।

Police file attempted murder charge against 'hero' farmer for jumping off water cannon

দীর্ঘদিন ধরেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে এই সংশোধিত কৃষি আইন নিয়ে বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছেন কৃষক সংগঠনগুলির। প্রায় ৩৫ টি কৃষক সংগঠন এই বিক্ষোভে অংশগ্রহণ করেছেন। যেদিন থেকে পাঞ্জাব হরিয়ানার আন্দোলনকারী কৃষকদের দিল্লিতে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়েছে সেদিন থেকেই কৃষক সংগঠনগুলির বলে এসেছে এই আন্দোলন সারা দেশব্যাপী ছড়িয়ে দেবেন তাঁরা। মঙ্গলবার সরকার পক্ষের সঙ্গে এসব সংগঠনের এই আলোচনার পর অখিল ভারতীয় কৃষক সংগঠনের তরফ থেকে জানানো হয় সরকারপক্ষ কৃষকদের দাবি বাতিল করে দিয়েছেন এবং কৃষকদের সমস্যার কোনো সমাধানই হয়নি।