Sangbad World

ডিমের খোসার এত গুণ! জানলে অবাক হয়ে যাবেন…

ডিমের খোসা ফেলে দেন? আমরা সকলেই ফেলে দিই। হবে এবার থেকে আর ফেলবেন না। জমিয়ে রেখে দেবেন। কারণ এই ডিমের খোসায় (egg shell) আসতে পারে আপনার দৈনন্দিন জীবনের নানান উপকারে। অবাক হয়ে যাবেন জানলে যে ডিমের খোসায় কি কি গুণ রয়েছে। তাহলে কি উপকারিতা দেখে নেওয়া যাক এক নজরে। What are the benefits of egg shell?

ডিমের খোসা খুবই উপকারী জিনিস। ঘর গৃহস্থালী কাজে লাগার পাশাপাশি রূপচর্চাতেও ব্যবহার করা হয়ে থাকে এই ডিমের খোসা। গৃহস্থালির নানান টোটকা হিসেবে কাজে লাগে ডিমের খোসা। অনেকেই কফি তেতো হয়ে গেলে খেতে পছন্দ করেন না। তাই কফির তেতো ভাব বাশাদ কাটাতে হলে ব্যবহার করতে পারেন ডিমের খোসা।ডিমের খোসা গুঁড়ো করে কফিতে মিশিয়ে দিলে কেটে যাবে কফির তেতো স্বাদ।

মুখের অবাঞ্ছিত রোম দূরীকরণে ডিমের খোসা ম্যাজিকের মতো কাজ করে।ডিমের সাদা অংশের সাথে ডিমের খোসা গুড়ো করে ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে একটি প্যাক বানিয়ে তা মুখে লাগিয়ে নিন ভালো করে। ১৫ মিনিট রেখে তা ঈষদুষ্ণ জল দিয়ে ধুয়ে ফেলে মুখ পরিষ্কার করে ফেলুন। বেশ কয়েকবার এই প্যাক ব্যবহারেই গায়েব হয়ে যাবে আপনার মুখের অবাঞ্ছিত লোম।

প্রায় সময়ই দেখা যায় সাধের গাছে পোকা লেগেছে। অনেক সময় কীটনাশক প্রয়োগ করলে পোকা হয়তো চলে যায় কিন্তু তার ক্ষতি করে আপনার সাধের গাছের। সেক্ষেত্রে ডিমের খোসা গুড়ো করে তা টবের মাটিতে মিশিয়ে দিন ভালো করে এরপর তাতে কাজ করুন দেখবেন কাছে পোকা লাগার সমস্যা থেকে দ্রুত মুক্তি পাবেন। এছাড়া ডিমের খোসায় থাকে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম যা আপনার গাছের স্বাস্থ্যও ভালো করবে।

বাসনের নাছোড়বান্দা দাগ তুলতে প্রচুর ঘষাঘষি করতে হয়। তাও বাসনের পোড়ার দাগ কিংবা তেল হলুদের দাগ সহজে উঠতে চায় না।সাবান দিয়ে ঘষলে তেলের দাগ উঠে গেলেও পোড়ার দাগ কিছুতেই উঠানো যায় না। এই সমস্যা থেকে সমাধান পেতে ডিমের খোসার গুঁড়ার সঙ্গে সাবান মিশিয়ে তা দিয়ে বাসন মাজুন। বাসনের পোড়া দাগ তো উঠবেই পাশাপাশি বাসন হয়ে উঠবে ঝকঝকে।

এক বোতল ভিনিগারে কয়েকটি ডিমের খোসা গুড়ো করে মিশিয়ে নিন। দেখবেন কিছুদিন পর ভিনিগারে ওই ডিমের খোসা গুলি গুলে গেছে। ওই মিশ্রণটি সংগ্রহ করে রাখবেন।যে কোন ব্যথায় এই মিশ্রণটি লাগিয়ে কিছুক্ষণ আলতো করে মালিশ করলে দেখবেন কিছুদিনের মধ্যেই ব্যথা গায়েব হয়ে যাবে।

Exit mobile version