Sangbad World

Bengal Election 2021: BJP-তে যোগ দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর আশীর্বাদ চাইলেন Yash Dasgupta

Yash Dasgupta after Joining the BJP sought the blessings of Chief Minister Mamata Banerjee

টলিপাড়ার সদস্যরা দল নির্বাচন থেকে শুরু করে কোন দলের সদস্য হবে সেই দিকেই ভীষণভাবে ব্যস্ত। টলিউডের প্রথম সারির অনেকেই বিজেপি দলে নিয়োগ হন। অভিনেতা রুদ্রনীল থেকে শুরু করে যশ দাশগুপ্ত (Yash Dasgupta), হিরণ, সাথে অভিনেত্রী দলের মধ্যে আছেন সৌমিলি বিশ্বাস, পাপিয়া অধিকারী, রুপা ভট্টাচার্য সহ আরো অনেকেই। তবে বুধবার যশের সাথেই সৌমিলি বিশ্বাস পাপিয়া অধিকারী এবং রুপা ভট্টাচার্য যোগ দেন। এরা সবাই বিজেপি দলের সদস্য কৈলাশ বিজয় বর্গী এবং মুকুল রায়ের উপস্থিতিতেই এই দলে শপথ নেন। মুকুল রায় এবং কৈলাশ বিজয় বর্গীয় বিজেপি দলের পতাকা হাতে তুলে দিয়ে সম্মান জানায় এবং সেই দলে আহবান করেন। Yash Dasgupta after Joining the BJP sought the blessings of Chief Minister Mamata Banerjee.

শপথ নেওয়ার পর যশের (Yash Dasgupta) বক্তব্য, ” সিস্টেমের ভেতরে থেকে পরিবর্তন আনতে চাই। এই সিদ্ধান্ত হঠাৎ করে নিইনি। আমার মূল লক্ষ্য যুবরা। বিজেপি যুবদের ওপর বিশ্বাস রেখেছে। যুবরাই পরিবর্তন আনতে পারে।” যুবদের উন্নতির জন্য কাজ করার কথাই যশ‌ এই দিন বলেন। এছাড়াও যশ বলেছেন “আমরা অনেকেই রাজনীতি মানে খারাপ ভাবি। আমাদের সমাজে ছোট ছোট ক্ষেত্রে রাজনীতি হয়। তবে রাজনীতির আসল মানে পরিবর্তন।” তবে এখানেই শেষ নয় যশ এর বক্তব্য। যশ গেরুয়া দলে নিয়োগ হবার পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আশীর্বাদ চেয়েছেন। তিনি আরো বলেন যে, ” আমি বিজেপিতে যোগ দিতে পারি। তবে দিদি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিরুদ্ধে কিছু বলবো না। আমি আজও দিদিকে বলেছি এই লড়াইয়ে আশীর্বাদ করার জন্য।”

অভিনেত্রী অঞ্জনা বসু সেদিন বক্তব্য রাখতে গিয়ে ইন্ডাস্ট্রি বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। মঞ্চে দাঁড়িয়ে তিনি প্রকাশ্যে বলেছেন ইন্ডাস্ট্রিতে রাজনীতি হয়। সেটা বন্ধ হওয়ার কথা যে ভীষণভাবে দরকার সেই কথা জানান অঞ্জনা। অঞ্জনা বসু অভিযোগ জানান তিনি আর্টিস্ট ফোরামের হয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন কিন্তু সেখানে শিল্পীদের ফোন করে বলে দেওয়া হয় তাঁকে যাতে ভোট না দেওয়া হয়। অঞ্জনা তাঁর সমস্ত ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তৃণমূলের দিকেই।

বিজেপিতে যে সমস্ত সদস্য সদ্য যোগ দিয়েছেন তারকাদের উদ্দেশ্যে কৈলাশ বিজয় বর্গীর বলেন, ” ভারতীয় জনতা পার্টি মিডিয়া সেন্টারের উদ্বোধন একপ্রকার আপনাদের উপস্থিতিতে হল। আমরা নতুন বাংলা বানানোর প্রস্তুতি নিচ্ছি। বাংলা গৌরব শালী রাজ্য। দিলীপ ঘোষের মতে বাংলাদেশের ঐতিহ্য হারিয়ে ফেলছে। যে রাজ্যে চৈতন্য মহাপ্রভু থেকে শুরু করে স্বামী বিবেকানন্দ এই সমস্ত বাঘা বাঘা মনীষীরা জন্মগ্রহণ করেছেন সেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জয় শ্রীরাম ধ্বনিকে কেন ভয় পাচ্ছেন এই প্রশ্ন তুলে সরব হয়েছেন দিলীপ ঘোষ। পাশাপাশি বাংলায় কর্মসংস্থান গড়ে তোলার কথা বলেছেন দীলিপবাবু। যাতে বাংলা ছেলেমেয়েরা কাজের খোঁজে বাইরের রাজ্যে চলে না যায়।

Exit mobile version